‘আমরা কাগজ দেখাবনা’ শীর্ষক প্রতিবাদে একঝাঁক তারকা সোশ্যাল মিডিয়াতে,এবার কাঁপবে শাসকের হাত

0
A shaky star on social media protesting 'we will not show paper', shaking hands

মহম্মদ ঘোরী শাহ, টাইমস্ বাংলাঃ এনআরসি এবং সিএএ’র বিরুদ্ধে প্রতিবাদ অনেকে হয়েছে। প্রত্যেক অ-বিজেপি রাজনৈতিক দল নিজেদের মত করে পথে নেমেছে। দেখাগেছে, সেসবই রাজনৈতিক সমীকরণ মেনেই। সকলেই এনআরসি ও সিএএ’র বিরোধীতা করলে এই প্রশ্নে একমঞ্চে রাজনৈতিক কারণে এক হতে পারে নি। তাই সোনিয়ার ডাকা এনআরসি বিরোধীতা বৈঠকে অনেক অ-বিজেপি নেতৃত্বে উপস্থিত থাকেন নি। এমন কি এনআরসি বিরোধী গন আন্দোলনের পথীকৃৎ মমতাও সেখানে যান নি। তাছাড়া তেলেঙ্গানার বাগ্ম সুপুরুষ,এনআরসির ঘোর বিরোধী, মুসলীম দরদী আসাদউদ্দিনের সেই বৈঠকে পাত্তা নেই, মায়াবতীও তাই করলেন। এমতোবস্থায় এনআরসি বিরোধী আন্দোলন যখন ভাগ হয়ে পড়ার সম্ভাবনাতে অনেকেই চিন্তিত, তখনই সোশ্যাল মিডিয়ায় একঝাঁক তারকার এনআরসির বিরুদ্ধে প্রচার অনেকের মনে আশার সঞ্চার করল।

সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচারিত এই স্বল্প দৈর্ঘের ভিডিওতে জনগন অরাজনৈতিকগত ভাবে এনআরসির বিরুদ্ধে একটি কার্যকরী, বাস্তবসম্মত উপায় খুঁজে পাবে। এই ভিডিওর শিরোনামই হল ‘আমরা কাগজ দেখাবনা’।  অর্থাৎ আমাদের ভোটেই তো আপনি নির্বাচিত, আজ রাজ সিংহাসণে ; তুমি কে হে বন্ধু তোমায় কাগজ দেখাব?নাগরিকত্ব আছে বলেই নির্বাচন কমিশন আপনার মত অপদার্থকে ভোটি দিতে দিয়েছে।আজ আপনার কি হল যে কাগজ দেখবে?

এই স্বল্প দৈর্ঘের ভিডিওতে দেখাগেছে, সব্যসাচী চক্রবর্তী,ধৃতিমান চট্টোপাধ্যায়,স্বস্তিকা মুখ্যপাধ্যায় সুমন বন্দোপাধ্যায়,চিত্রাঙ্গদা চক্রবর্তী, রূপম ইসলাম সহ বারজন তারকাকে।তাঁদের বলিষ্ঠ কণ্ঠে ধ্বনিত হয়েছে,  মন্দির নয়, মসজিদ নয় দেশ জুড়ে চাই আজাদি।শাসক আসবে,শাসক যাবে। কিন্তু কাগজ আমরা দেখাবনা। মানুষে মানুষে বিভেদ করে, আমরা বাঁচতে পারবনা। শুধু তাই নয় এই বলিষ্ঠ তারকাদের কণ্ঠে বিদ্রোহের সুরও ধ্বনিত হয়েছে, বুকে ভালোবাসা আর বিদ্রোহ নিয়ে ভয়ের সামনে মাথা নোয়াব না।

এতদিনেই যেন ভারতীয় জনগনের মনের উচ্ছ্বাস নির্ভীক নির্দলীয় ভাবে ধ্বনিত হল।রাজনৈতিক দলগুলো যখন দলীয় স্বার্থে এনআরসির বিরোধীতায় সমীকরণ মেলেতে ব্যস্ত তখন ‘আমরা কাগজ দেখাব না’ শীর্ষক আন্দোলতা বার্তা ভারতের জনগনকে রবীন্দ্রনাথের রাখীবন্ধন বা স্বদেশী আন্দোলনের মতোই প্রত্যয় জোগাবে। কেঁপে উঠবে শাসকের হাত।