২৪শে ফেব্রুয়ারি রবিবার রাজ্যজুড়ে ৩১টি পরীক্ষাকেন্দ্রে আল-আমীন মিশনে একাদশ শ্রেণীতে ভর্তির প্রবেশিকা পরীক্ষা

0

নিজস্ব প্রতিবেদক,টাইমস্ বাংলা: আগামীকাল ২৪শে ফেব্রুয়ারি রবিবার আল-আমীন মিশনে একাদশ শ্রেণীতে বিজ্ঞান ও কলা বিভাগে ভর্তির প্রবেশিকা পরীক্ষা। মোট ৩১টি পরীক্ষাকেন্দ্রে এই প্রবেশিকা পরীক্ষা হবে বলে জানিয়েছেন আল-আমীন পরিবারের অন্যতম সদস্য মোমিনুর রহমান। এখনো পর্যন্ত পরীক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় সাড়ে ছয় হাজার ছাড়িয়ে গেছে, যা গতবারের তুলনায় অনেকটাই বেশি বলে জানিয়েছেন তিনি। পরীক্ষা হবে রবিবার দুপুর ১২টা থেকে ৩টে পর্যন্ত। সময়সীমা ৩ঘন্টা। লিখিত পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতেই বের হবে মেধা তালিকা।
নিউটাউনের প্রস্তাবিত সেই ঐতিহাসিক আল-আমীন ভবন:

Alameen Mission


Alameen Mission

একইদিনে আল-আমীন মিশনের ইংরেজি মাধ্যমে পঞ্চম থেকে নবম শ্রেণীতে ভর্তির প্রবেশিকা পরীক্ষাও অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছে মিশন কর্তৃপক্ষ। ছেলেমেয়েদের কথা চিন্তা করেই রয়েছে একটি সুবিধা । সমাজে পিছিয়ে পড়া সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের কোনো ছেলে বা মেয়ে যদি পরীক্ষা কেন্দ্রে পরীক্ষা শুরুর দু ঘন্টা আগে গিয়ে ফর্ম পূরণ করে তাহলে সেও দিতে পারবে এই প্রবেশিকা পরীক্ষা। এই শর্তাবলী শুধু মাত্র কিছু কিছু পরীক্ষা কেন্দ্রের জন্যেই প্রযোজ্য।

প্রবেশিকা পরীক্ষার পাশাপাশি সকল পরীক্ষার্থীদের হাতে তুলে দেওয়া হবে একটি অনবদ্য বই যার নাম ‘অনন্য প্রাক্তনী’। বইটির বিশেষত্ব হল, এই আল-আমীন মিশনের যখন থেকে পথ চলার শুরু ঠিক তখন থেকে আজ অব্দি যত কৃতি ছাত্র-ছাত্রীরা এই মিশনের নাম উজ্জ্বল করে সমাজে আজ প্রতিষ্ঠিত, তাঁদেরই গল্প ও আল-আমীনের সাথে তাঁদের যাত্রার কথা-কাহিনীই বর্ণিত আছে এতে।
নিউটাউনের প্রস্তাবিত সেই ঐতিহাসিক আল-আমীন ভবন:

Alameen Mission


Alameen Mission

উল্লেখ্য, আল-আমীন মিশনের প্রাক্তনীদের মধ্যে রয়েছেন প্রায় তিন হাজার ডাক্তার, আড়াই হাজার ইঞ্জিনিয়ার, শত শত শিক্ষক, অধ্যাপক, গবেষক, প্রশাসনিক অধিকর্তা! যাঁদের পেয়েছে এই সমাজ, যাঁরা বেড়ে উঠেছে আল-আমীনের ছত্রছায়ায়। রবিবার প্রবেশিকা পরীক্ষার্থীদের হাতে বইটি তুলে দেওয়ার অর্থই হল সেই সকল পিছিয়ে পড়া ছেলেমেয়ে দের জীবনে বড় হওয়ার অনুপ্রেরণা দেওয়া।
আল-আমীন মিশনের অনন্য প্রাক্তনীদের দেখেনিন একনজরে:

হাওড়া জেলার উদয় নারায়নপুরের এক কলেজ পড়ুয়া জনাব নুরুল ইসলাম সাহেব ও তাঁর সহযোগীদের প্রচেষ্টায় ১৯৮৬ সালে ৭ জন ছাত্র নিয়ে শুরু হয় আবাসিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আল-আমীন মিশন।তখন থেকেই শুরু পথ চলা।

বর্তমানে আল-আমীনের ৭০ টির বেশি শাখা, ১৭ হাজার আবাসিক ছাত্রছাত্রী।স্বাধীনতার পরেও যখন বাংলার শিক্ষাক্ষেত্রে ও আর্থিকক্ষেত্রে পিছিয়ে ছিল সংখ্যালঘু সমাজ তখনই এই সমাজকে সঠিক পথ দেখাতে আলোর দিশারী হয়ে ওঠে আল-আমীন মিশন।মিশনের সেই প্রাণপুরুষ বর্তমানে মিশনের সাধারণ সম্পাদক জনাব এম নূরুল ইসলাম। যিনি এই মিশনকে ধীরে ধীরে আরো এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য অগ্রণী ভূমিকা পালন করে চলেছেন।

নিউটাউনের প্রস্তাবিত সেই ঐতিহাসিক আল-আমীন ভবন:

Alameen Mission


Alameen Mission