আমফানে প্রাণহানি এড়াতে ৭০ হাজার মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরালো উত্তর ২৪ পরগনা জেলা প্রশাসন

0

টাইমস বাংলা নিউজডেস্ক : ঘূর্ণিঝড় আমফানের পরিপ্রেক্ষিতে ইতিমধ্যেই সম্ভাব্য সব রকম ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে উত্তর ২৪ পরগণা জেলা প্রশাসন। মঙ্গলবার জেলা তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তর থেকে জারি করা প্রেস বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, এদিন বিকেলের মধ্যেই বসিরহাটের উপকূলবর্তী ও নদীতটবর্তী এলাকা থেকে প্রায় ৬০,০০০ মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে স্থানান্তর করা হয়েছে। স্থানান্তরের কাজ এখনও চলছে। সন্ধ্যার মধ্যেই সর্বসাকুল্যে প্রায় ৭০,০০০ মানুষকে স্থানান্তর করার কাজ সম্পূর্ণ হবে। এর জন্য প্রায় ৪৯৫টি ক্যাম্প ও নিরাপদ আশ্রয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। আশ্রয় শিবিরগুলিতে খাবার ও জল, শিশুখাদ্য, জলের পাউচ, স্যানিটাইজার, মাস্ক ইত্যাদির ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

জেলাশাসক চৈতালি চক্রবর্তী ইতিমধ্যেই জেলা প্রশাসনের শীর্ষ আধিকারিকদের নিয়ে সংশ্লিষ্ট সব দপ্তরের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। স্বাস্থ্য দপ্তর সহ সংশ্লিষ্ট সব দপ্তরকে পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার সঙ্গে সঙ্গে কোভিড সংক্রান্ত অন্যান্য নিয়মও মেনে চলা হচ্ছে বলে জানানো হয়েছে। সংক্রমণ এড়াতে মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে স্থানান্তরের কাজে নিযুক্ত ব্যক্তিদের সুরক্ষা পোশাক পিপিই দেওয়া হয়েছে।

ইতিমধ্যেই ৩ কোম্পানি কেন্দ্রীয় ও ১ কোম্পানি রাজ্য বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী ও ২ কোম্পানি বিপর্যয় মোকাবিলা গোষ্ঠী মোতায়েন করা হয়েছে। এলাকায় উপস্থিত থেকে পরিস্থিতি পর্যালোচনার জন্য জেলাশাসক বুধবার বসিরহাটেই উপস্থিত থাকবেন। খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের বুধবার বসিরহাটে থেকে পরিস্থিতির উপর নজর রাখবেন। জেলার অন্যান্য এলাকা থেকেও, মাটির বাড়ি এবং তুলনামূলকভাবে দুর্বল ভবনে বসবাসকারী মানুষকে অন্যত্র নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। প্রশাসনের অন্যান্য আধিকারিকদেরও বুধবার জেলার বিভিন্ন ব্লকে পাঠানো হচ্ছে। তাঁরা সেখানে থেকেই পরিস্থিতি পর্যালোচনা করবেন।