সিএএ হল বৈষম্যমূলক এবং বিভেদমূলকঃ সোনিয়া গান্ধী

0
CAA is discriminatory and discriminatory: Sonia Gandhi

নিউজডেস্ক,টাইমস্ বাংলাঃ শনিবার কংগ্রেসের ওয়ার্কিং কমিটি বর্তমান ভারতের পরিস্থিতি সম্পর্কে উদ্বেগ প্রকাশ করে সিএএ’র বিরুদ্ধে একটি গুরুত্বপূর্ণপ্রস্তাব পাশ করল। ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে সোনিয়া গান্ধী সিএএ’কে বৈষম্যমুলক ও বিভেদমুলক বলে উল্লেখ করেন।

সোনিয়া এদিন দিল্লির জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয় (জেএনইউ), জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া এবং অন্যত্র যুবক ও শিক্ষার্থীদের উপর হামলার ঘটনা তদন্তের জন্য সার্বিক উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন কমিশন গঠন করার দাবি জানান।

সোনিয়া বলেন, ‘সিএএ আইনের অশুভ উদ্দেশ্য প্রত্যেক দেশপ্রেমিক, সহিষ্ণু ও ধর্মনিরপেক্ষ ভারতীয়দের কাছে স্পষ্ট। ভারতীয়দের ধর্মের ভিত্তিতে বিভাজনই এর উদ্দেশ্য। সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন যে গভীর ক্ষতিকর তা বুঝতে পেরেছেন হাজার হাজার তরুণ,  নারী এবং বিশেষ করে শিক্ষার্থীরা।’

বিতর্কিত ওই আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ-আন্দোলনের প্রশংসা করে সোনিয়া  বলেন, ‘পুলিশের দমনপীড়ন ও প্রচণ্ড ঠাণ্ডা উপেক্ষা করে প্রতিবাদকারীরা পথে  নেমেছেন। এই নির্ভীক মনোভাব, সংবিধানের মূল্যবোধের প্রতি আস্থা এবং সেই  মূল্যবোধকে সুরক্ষিত রাখার দৃঢ় সংকল্পতাকে কুর্ণিশ জানাই।’

তিনি বলেন, ‘উত্তরপ্রদেশের বহু শহরে, জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া, জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়, বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়, এলাহাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়, দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়, গুজরাট বিশ্ববিদ্যালয় এবং বেঙ্গালুরুর ইন্ডিয়ান ইন্সস্টিটিউট সায়েন্সে পুলিশি বাড়িবাড়ি ও শক্তি প্রয়োগের ঘটনায় কংগ্রেস উদ্বিগ্ন।’  উত্তরপ্রদেশ ও দিল্লির মতো রাজ্যগুলো পুলিশ-রাজ্য হয়ে উঠেছে বলেও সোনিয়া গান্ধী অভিযোগ করেছেন।

সোনিয়া উপসাগরীয় অঞ্চলের ঘটনাক্রম নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে জম্মু-কাশ্মীর পরিস্থিতি ও ইরান-আমেরিকা সংঘর্ষ নিয়েও আলোচনা হয়েছে।

ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে সিএএ, এনআরসি বিরোধীদের দমন করার সরকারের প্রচেষ্টা বিরুদ্ধে, দেশের অবনতিশীল অর্থনৈতিক অবস্থা সম্পর্কে, জম্মু-কাশ্মীরে সরকারি নিষেধাজ্ঞার ৬ মাস পূর্ণ হওয়া এবং ইরান-আমেরিকার মধ্যে বিরোধের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতির বিষয়ে প্রস্তাব পাস হয়েছে।