দেরি হলেও ইনসাফ পেল নির্ভয়ার মা , ফাঁসি দেওয়া হল দোষীদের

0

মিজানুল কবির , কলকাতা :অবশেষে ফাঁসি দেওয়া হল দিল্লী গণধর্ষণ এবং খুন মামলার । আজ ভোর ৫:৩০ মিনিটে দিল্লীর তিহার জেলে ফাঁসিতে ঝোলানো হল দোষী মুকেশ সিং , অক্ষয় সিং ঠাকুর, বিনয় শর্মা এবং পবন কুমার গুপ্তা কে ।
নির্ভয়া কাণ্ডের দোষীদের ফাঁসির উপর স্থগিতাদেশ চেয়ে আপ্রান চেষ্টা চালিয়ে যেতে দেখা যায় ওই চার দোষীর আইনজীবী এপি সিং কে । শেষ রাতে ১২ টা নাগাদ দিল্লী হাইকোর্টে রিভিশন পিটিশন দাখিল করেন তিনি পরক্ষণেই হাইকোর্ট মামলা খারিজ করে দিলে রিট পিটশনের জন্য ছুটে যান সুপ্রীম কোর্টে।

রাত ২:৪৫ নাগাদ সুপ্রীম কোর্টের তিন বিচারপতি আর ভানুমতি , অশোক ভূষণ এবং এস বোপান্নার বেঞ্চে এই মামলার শুনানী শুরু হয়। মোটামুটি ৩:৪৫ নাগাদ এই পিটিশনের ডিসমিস করার খবর পাওয়া যায়।
আজকের আগে তিনবার ফাঁসির রায় ঘোষণা হলেও কোন না কোন রকম ভাবে ফাঁসির আদেশ স্থগিত করতে সক্ষম হন এই আইনজীবী এপি সিং ।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে ২০১২ সালের ১৬ ই ডিসেম্বর ২৩ বছরের এক ছাত্রীকে বাড়ি ফেরার পথে নৃশংসভাবে গণ ধর্ষণ করে অভিযুক্তরা । ঘটনার পৈশাচিকতায় শিউরে উঠেছিল গোটা দেশ ।তরুণীর আসল নাম পরে প্রকাশ্যে এলেও, নির্ভয়া নামেই তিনি পরিচিত হয়ে গিয়েছিলেন তত দিনে। শেষ পর্যন্ত বাঁচানো যায়নি নির্ভয়াকে।
পরে শুরু হয় ধরপাকড় যথাক্রমে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন আদালতে চলে মামলা । নির্ভয়ার মৃত্যু হলে খুনের মামলা ও রুজু হয়। বিভিন্ন সময় বিভিন্ন তথ্য আদালতে উঠে আসে । নিম্ন আদালত থেকে উচ্চ আদালত কিংবা কখনও রাষ্ট্রপতির দ্বারস্থ হয়েও শেষ রক্ষা হয়নি ওই চার দোষীর । দীর্ঘ ৭ বছর ধরে চলে আসা মামলার ইতি হল আজ । সোশ্যাল সাইট কিংবা দেশের অলিগলি জুড়ে এই ফাঁসির পরবর্তীকালে যেমন খুশির মহল দেখা মিলেছে তেমনি বিভিন্ন আইন বিশেষজ্ঞরা একই মামলায় বারংবার পিটিশন দায়ের করার নতুন গাইডলাইন সুপ্রীম কোর্টের তরফে প্রকাশিত হবে এই আশায় রয়েছেন ।
এই প্রসঙ্গে কলকাতা হাইকোর্টের আইনজীবী শবনম সুলতানা জানান ” সুপ্রীম কোর্ট তথা বিচার ব্যাবস্থার প্রতি আমাদের অটুট বিশ্বাস ছিল আছে থাকবে হয়ত এই মামলার ক্ষেত্রে কিছুটা দেরি হলেও ইনসাফ পেল নির্ভয়ার মা , পরবর্তীকালে এই ধরনের মামলা উঠে আসলে আশাকরি তাড়াতাড়ি সুরাহা মিলবে ” । তিনি আরও জানান ” এই মামলার ফলে নতুন বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ এমেন্ডমেন্ট উঠে এসেছে যা বিচার ব্যাবস্থার প্রক্রিয়াকে দ্রুত করতে অদূর ভবিষ্যতে সাহায্য করবে” ।