গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে বিতর্ক হবেই, আলোচনার মাধ্যমেই কোন ইস্যুর সিদ্ধান্ত নিতে হবে: উপরাষ্ট্রপতি

0
In a democratic state, there will be debate, only issue should be decided through discussion: Vice President

টাইমস বাংলা নিউজডেস্ক : গনতান্ত্রিক রাষ্ট্রে কোন বিষয়ে মানুষের একমত না হওয়ার সম্পূর্ণ অধিকার থাকলেও, হিংসার একেবারেই কোন স্থান নেই বলে উপরাষ্ট্রপতি এম ভেঙ্কাইয়া নাইডু মন্তব্য করেছেন। নিউটাউনের বিশ্ব বাংলা কনভেনশন সেন্টারে রবিবার আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা রোটারি ইন্টারন্যাশনালের ভারতে তাদের কাজের ১০০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে আয়োজিত ‘ রোটারি ইন্ডিয়া সেন্টেনিয়াল সামিট ২০২০’ এর সমাপ্তি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে তার ভাষণে উপরাষ্ট্রপতি এই মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, সংসদীয় গনতন্ত্রে কোন ইস্যুতে বিতর্কের সুযোগ রয়েছে। কিন্তু আলোচনার মাধ্যমেই সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত বলে তিনি মনে করেন।

সারা বিশ্বে শান্তিস্থাপনের লক্ষ্যে সন্ত্রাসবাদকে নির্মূল করার উপর গুরুত্ব আরোপ করে উপরাষ্ট্রপতি বলেন, সন্ত্রাসবাদের কোন ধর্ম হয় না। সন্ত্রাসবাদকে সমূলে বিনাশ করতে জাতিপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদের কঠোর নীতি প্রণয়ন করা উচিত। তিনি বলেন, শান্তিই দেশের উন্নয়নের একমাত্র শর্ত। ধর্ম ও সংস্কৃতি দুটি আলাদা বিষয় উল্লেখ করে উপরাষ্ট্রপতি বলেন, কে কোন ধর্ম পালন করবেন তা ব্যক্তির নিজস্ব বিষয়, কিন্তু দেশের সংস্কৃতি রক্ষা করা ও তাকে মেনে চলা দেশে বসবাসকারী প্রতিটি নাগরিকের কর্তব্য।

শিক্ষা, স্বাস্থ্য, রোগ নিয়ন্ত্রণের মত সমাজমূলক কাজে রোটারির ভূমিকার ভূয়সী প্রশংসা করেন উপরাষ্ট্রপতি। দেশের সার্বিক বিকাশে রোটারির মত স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাদের এগিয়ে এসে রাজ্য ও কেন্দ্রীয় দুই সরকারের কাজে সহযোগিতা করা উচিত বলে উপরাষ্ট্রপতি মন্তব্য করেন। জলবায়ু পরিবর্তন, শান্তি সম্প্রীতি রক্ষা, পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা, সমাজের প্রান্তিক মানুষদের মানোন্নয়ন, লিঙ্গ ও জাতি বৈষম্য রোধ, গ্রাম ও শহরের মধ্যে ভেদাভেদ ঘোচানোর জন্য স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাদের আরো ইতিবাচক ভূমিকা নেওয়ার আবেদন জানান উপরাষ্ট্রপতি।

অনুষ্ঠানে, রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়, রাজ্যের মন্ত্রী ব্রাত্য বসু উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, দেশে ১০০ বছরে শিক্ষা, জল, স্বাস্থ্য, রোগ প্রতিরোধ, মা ও শিশুর স্বাস্থ্য উন্নয়নের মত সেবামূলক কাজে রোটারির অবদান তুলে ধরতে গত শুক্রবার থেকে তিনদিনের সামিট শুরু হয় নিউটাউনের বিশ্ববাংলা কনভেনশন সেন্টারে। রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়, রাজ্যের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র,কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ডক্টর হর্ষ বর্ধন ও গঞ্জেন্দ্র সিং শেখাওয়াত এই সামিটে অংশগ্রহণ করে বক্তব্য রেখেছেন।