কাশ্মীরঃ উভয়েই কি ট্রাম্পের মুখাপেক্ষী?

0
Kashmir: Are they both opposed to Trump?

মহম্মদ ঘোরী শাহ্

জাতীসংঘের সাধারণ পরিষদের বৈঠক নিয়ে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে একটা অতিরিক্ত আবেগ বিরাজ করছে। প্রত্যেকই চায়ছে কাশ্মীর বিষয়ে নিজ অবস্থানের মার্কিন সমর্থন আদায় করতে। এ লক্ষ্যে উভয় রাষ্ট্রপ্রধান আগে থেকেই মার্কিনযুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান নিয়েছেন। ফলে সুযোগটা আমেরিকার সামনে উপস্থিত হয়েছে। বন্ধুত্ব বা প্রভূত্ব কোনটার বিকাশ কার সঙ্গে করবে তা ট্রাম্পের স্বেচ্ছাধীন বিষয়।
আর এই বিষয়টি কাশ্মীরের সঙ্গে সম্পৃক্ত নাও হতে পারে। কাশ্মীর নিয়ে ভারত এবং পাকিস্তানের মতবিরোধ দীর্ঘদিনের। ইদানীং জাতীয় এবং রাজনৈতিক ইস্যুতে পরিনত হয়েছে। নির্বাচনের সময় উভয় দেশেই কাশ্মীর ইস্যু এখন নির্বাচনী ইস্যুতে পরিনত হয়েছে। ফলে উভয়দেশের স্বার্থান্বেষী যাঁতাকলে পেশিত হচ্ছে কাশ্মীরি স্বত্বার। লঙ্ঘিত হয়ে চলছে মানবিক অধিকার। স্তব্ধ হয়ে পড়েছে মানবিক বিকাশ। এর দায়ী কে? এ প্রশ্নের উত্তর সরাসরি দেওয়া না গেলেও, তা উপেক্ষা করা যায় না।
মার্কিনযুক্তরাষ্ট্র যে দেশকেই সমর্থন করুক না কেন, তা হবে কূটনৈতিক সমীকরণের ভিত্তিতে। কে কতটা প্রভুত্ব মেনে নিতে ইচ্ছুক তা হয়তো পরখ করে নেবেন প্রেসিডেন্ট মি.ট্রাম্প এই সময়। এইসব যাবতীয় পদক্ষেপ কোনভাবেই কাশ্মীরের পরিস্থিতি উন্নয়নে কোনভাবে সহয়েতা করবে না। এখন উভয়দেশের সামনে কাশ্মীর ইস্যুতে অপেক্ষা করছে আমেরিকার ‘অধীনতামুলক মিত্রতা’।