গান্ধীবাদী ‘অহিংসা’ বিশ্বরাজনীতির মূলমন্ত্র হোক

0

বিশেষ নিবন্ধ, মহম্মদ ঘোরী শাহ্,টাইমস্ বাংলা: আজ বিশ্ব অসহিষ্ণুতা, উত্তেজনা, নিপীড়ন ও সহিংসতায় ভরে গেছে।প্রতিনিয়তই রক্তে রঞ্জিত হচ্ছে মানব ইতিহাস।লাঞ্ছিত হচ্ছে মানবতা।রাষ্ট্রীয় স্তরে, রাজনৈতিক স্তরে, সামাজিক স্তরে এমন পারিবারিক স্তরেও সহিংসতা বিপদজনক মূর্তি ধারণ করছে।

TiMES Bangla


TiMES Bangla


TiMES Bangla
অথচ ইতিহাসের অভিজ্ঞতা বলছে সহিংসতা দ্বারা কেবল দুঃখ, ধংস ছাড়া অন্যকিছু অর্জিত হয়না।বরং অহিংস আদর্শ দ্বারাই মানব সভ্যতার জন্য মঙ্গল অর্জন করা যায়।আর এটা হাতে কলমে করে দেখিয়ে দিয়েছেন ভারতের অহিংসার অবতার মহাত্মা গান্ধী।
ভারতের ইতিহাসের শান্তির প্রতিক এই মহান ব্যক্তিত্ব ভারতবাসী তথা বিশ্বকে দেখিয়ে দিয়েছেন রাজনৈতিক ক্ষেত্রে অহিংসার দ্বারা অনেক কিছুই করা য়ায।তাঁর অহিংসবাদী আন্দোলন গুলোর আঘাতে শক্তিশালী বৃট্রিশ রাজদণ্ড হেলিয়া পড়েছিল।তাই ভারতীয় রাজনীতির অঙ্গনের অনেকটা জুড়ে রহেছে গান্ধীজির অহিংসবাদ।
কিন্তু বর্তমান ভারতের রাজনৈতিক পরিস্থিতি দেখে কেহই উপলব্ধি করতে পারবেন না ভারতীয় রাজনীতি গান্ধীজির অহিংসবাদে পরিব্যাপ্ত ছিল। বিশেষকরে বিগত চার বছরে দেশের রাজনীতি যেভাবে সহিংস হয়ে পড়েছে তা খুব চিন্তাজনক। অথচ গনতান্ত্রিক রাষ্ট্রীয় পরিকাঠামোয় সহিংসতার কোন অবকাশ থাকার কথা নয়। এই সময় আমরা দেখেছি ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে কেবল রাজনৈতিক স্বার্থে মব লিঞ্চিং, দলিত পীড়ন, গোরক্ষা জনিত হত্যার মত শত শত ঘটনা। যেগুলির প্রত্যেকটিই রাজনৈতিক স্বার্থ সিদ্ধির জন্য পূর্ব পরিকল্পিত। যা ভারতীয় রাজনৈতিক ঐতিহ্যের জন্য কলংকময়।

TiMES Bangla


TiMES Bangla


TiMES Bangla

অথচ গান্ধীজির এই রাজনৈতিক আদর্শ বিশ্বদরবারে সমাদৃত। তাঁর এই আদর্শ বিশ্বকে যে শান্তিময় করে তুলতে পারে তা বোঝানোর জন্য ২০০৭ সালের ১৫ই জুন জাতিসংঘের সাধারণ সভায় গান্ধীজির জন্মদিবস ২ রা অক্টোবরকে আন্তর্জাতিক অহিংসা দিবস হিসাবে গ্রহন করা হয়।উদ্দেশ্যটা ছিল, রাজনীতির সাফল্যের চাবিকাঠি হল অহিংসা আর এটা মনে করিয়ে দেওয়া।
ভারতের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি যখন সহিংসতায় অবগাহন করেই চলছে তখন অহিংসার অনুশীলন যে কতটা জরুরী তা সহজেই অনুমেয়। তবে এটা যে রাজনৈতিক স্তরে শুরু হবে তা আশা করা যায় না। আপামর জনগন যদি সংহিস রাজনীতির ফাঁদে না পা দেয়, তখন হয়তো রাজনীতি বাধ্য হয়েই দিশা বদলাবে।আর সে জন্য কঠিন শপথের প্রয়োজন আছে।

TiMES Bangla


TiMES Bangla


TiMES Bangla