দুঃখ ও প্রতিশোধের বার্তা, জে. সোলাইমানির দাফন সম্পন্ন রাষ্ট্রীয় মর্যাদায়

0
Message of sorrow and revenge, J. Solaimani's burial is in full state honor

নিউজডেস্ক,টাইমস্ বাংলাঃ তেহরান বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাঙ্গনে ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী শহীদদের জানাযার নামাজে ইমামতি করেন। তেহরানের স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ৯টায় জানাযা নামাজ শুরু হয়। এতে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা, প্রেসিডেন্ট, সংসদ স্পিকার ও বিচার বিভাগের প্রধানসহ সব শ্রেণীর কোটি মানুষ অংশ নেন।

এদিকে ইরানের সর্বোচ্চ নেতার সিনিয়র উপদেষ্টা আলী আকবর বেলায়েতি বলেছেন, আমেরিকা মধ্যপ্রাচ্য থেকে সেনা প্রত্যাহার না করলে এ অঞ্চল ওয়াশিংটনের জন্য আরেকটি ভিয়েতনামে পরিণত হবে।

তিনি মার্কিন সন্ত্রাসী হামলায় শহীদ লেঃ জেনারেল কাসেম সোলাইমানি ও ইরাকের জনপ্রিয় স্বেচ্ছাসেবী বাহিনী হাশদ আশ-শাবি’র উপ প্রধান আবু মাহদি আল-মুহানদিস’সহ বাকি শহিদদের স্মরণে তেহরানে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

বেলায়েতি বলেন, “মার্কিনিরা জেনারেল সোলাইমানিকে হত্যা করে মূর্খতার পরিচয় দিয়েছে এবং তাদেরকে এ অঞ্চল ছাড়তেই হবে।” ইরানের এই সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “আমেরিকানরা যদি এ অঞ্চল ত্যাগ না করে তাহলে তারা মধ্যপ্রাচ্যে আরেকটি ভিয়েতনামের মুখোমুখি হবে।”

আজ ইরানের রাজধানী তেহরানে বাবার জানাজায় অংশ নিয়ে জেনারেল সোলাইমানির কন্যা জেইনাব সোলাইমানি বলেন,আমেরিকা ও ইহুদিবাদী ইসরাইল জেনে রাখো বাবার শাহাদাতের ফলে গোটা বিশ্বের প্রতিরোধ ফ্রন্টের মধ্যে মানবিকতা আরও বেশি জাগ্রত হবে। এখন থেকে পশ্চিম এশিয়ায় মোতায়েন মার্কিন সেনাদের স্ত্রী-সন্তানদেরকে তাদের স্বামী অথবা বাবার মৃত্যুর আশঙ্কায় প্রহর গুনতে হবে।