মাটি খুঁড়ে নয়, সাত তলায় সুইমিং পুলের নিচ থেকে উদ্ধার ৫,৮৮০টি সোনার বার

0
Not digging the ground,From the bottom of the seven-floor swimming pool Recovered 5880 gold bars

টাইমস বাংলা নিউজডেস্ক : বহুতলের ৭ তলায় এক বিরাট সুইমিং পুলের নিচে থেকেই সন্ধান পাওয়া গেল নকল সোনার বারের। আইএমএ-র কোটি কোটি টাকা আর্থিক তছরুপের অভিযোগে বুধবার ওই সংস্থার মালিক মহম্মদ মনসুর খানের বেঙ্গালুরুর বাড়িতে হানা দেন সিটের আধিকারিকরা। জানা গেছে বাড়িটির ৭ তলায় একটি সুইমিং পুলের নিচে থেকে মিলেছে ৩০৩ কেজি সোনার বার।
সিট জানিয়েছে, পঞ্জি স্কিম অপারেটর মহম্মদ মনসুর খান জনগণকে বিপুল পরিমাণ সোনা দেখিয়ে তাঁদের সংস্থায় বিনিয়োগের জন্য প্ররোচিত করতেন। দেশ ছাড়ার আগে, মনসুর খান তাঁর বাড়ির সুইমিং পুলের নিচেই ওই নকল সোনার বারগুলি লুকিয়ে রেখে যান। সিট জানিয়েছে, ওই বাড়িতে হানা দিয়ে ৩০৩ কেজি ওজনের মোট ৫,৮৮০টি সোনার বার বাজেয়াপ্ত করেছে তাঁরা।
উল্লেখ্য , আগেই মামলার তদন্তে নেমে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট মনসুর খানের যাবতীয় অস্থাবর সম্পত্তি এবং ব্যাংক আমানত সহ ২০৯ কোটি টাকার সম্পদ বাজেয়াপ্ত করে। প্রায় ৪০,০০০ বিনিয়োগকারীর কোটি কোটি টাকার বিনিয়োগ করা অর্থ নিয়ে আইএমএ সংস্থার মালিক গা ঢাকা দেন। প্রতারণার খবর পেয়ে ইডি আইএমএ-র বিভিন্ন সংস্থা ও মহম্মদ মনসুর খানের বিরুদ্ধে অর্থ পাচারের মামলা দায়ের করলে গ্রেফতার হন আইএমএর ৩২ জন পরিচালক, কর্পোরেশন, এক করদাতার স্বামী, বেঙ্গালুরু নগর জেলার প্রাক্তন জেলা প্রশাসক এবং বেঙ্গালুরু উত্তর উপ-বিভাগের সহকারী কমিশনারও। সম্প্রতি কংগ্রেস বিধায়ক বিজে জামির আহমেদ খানকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।