কলকাতা বন্দরের নাম ডক্টর শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জী বন্দর রাখলেন প্রধানমন্ত্রী, করলেন একগুচ্ছ প্রকল্পের সূচনা

0
Prime Minister named Shyama Prasad Mukherjee port of Kolkata port, started a bunch of projects

টাইমস বাংলা নিউজডেস্ক : কলকাতা বন্দরকে ডক্টর শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জী নামাঙ্কিত করা হবে বলে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদি ঘোষণা করেছেন। রবিবার সকালে কলকাতা নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে কলকাতা বন্দরের দেড়শ বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী একথা ঘোষণা করেন। তিনি বলেন কলকাতা বন্দর কর্তৃপক্ষ, দামোদর ভ্যালি কর্পোরেশন, চিত্তরঞ্জন লোকোমোটিভ, হিন্দুস্তান ফার্টিলাইজার মত রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাগুলির গঠনে ডক্টর শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জী উল্লেখযোগ্য ভূমিকা নিয়েছিলেন। যেমন উপকূলীয় যোগাযোগ ও শ্রমনীতি তৈরি করতে ডক্টর বাবাসাহেব আম্বেদকার উল্লেখযোগ্য ভূমিকা নিয়েছিলেন।সে কথা স্মরণে রেখেই কলকাতা বন্দরের নাম পরিবর্তনের এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন।

পাশাপাশি কেন্দ্রীয় সরকার বন্দর কেন্দ্রিক যোগাযোগ ও জলপথের পরিকাঠামো উন্নয়নকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী। সে কারণে সাগরমালা প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। ওই প্রকল্পে ৩ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে ২০০ প্রকল্পের কাজ চলছে ও তার মধ্যে ১২৫টি প্রকল্পের কাজ ইতিমধ্যেই শেষ হয়েছে বলে প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন। অভ্যন্তরীণ জল পরিশোধন এর মাধ্যমে দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের সঙ্গে মূল ভূখন্ডকে যুক্ত করার উদ্যোগ শুরু হয়েছে বলে তিনি জানান। ২০৩১ সালের মধ্যে গঙ্গা বড় জাহাজ চলাচলের উপযোগী হয়ে উঠবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। কেন্দ্রের নদী উপকূল উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় কলকাতা ও সন্নিহিত অঞ্চলের নদীতীর সাজিয়ে তোলা হচ্ছে বলে প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন। এই কাজ শেষ করে পর্যটকদের জন্য নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হবে বলে তিনি মনে করেন।

বন্দরের দেড়শ বছর পূর্তি উপলক্ষে তিনি একগুচ্ছ প্রকল্পের উদ্বোধন ও শিলান্যাস করেন। বন্দরের অবসরপ্রাপ্ত কর্মীদের পেনশন বাবদ এলআইসির হাতে তিনি ৫০০ কোটি টাকার চেক তুলে দেন। বন্দরের দুই শতায়ু প্রবীণ পেনশনভোগী নরেশ দাস ও নাগিনা ভগৎকে প্রধানমন্ত্রী সম্বর্ধনা দেন। অনুষ্ঠানে জাহাজ প্রতিমন্ত্রী মনসুখ মান্ডব্য, কলকাতা বন্দরের চেয়ারম্যান বিনীত কুমার সহ বহু বিশিষ্ট ব্যক্তি উপস্থিত ছিলেন।