রেলের ভাড়া বাড়ালো রেলমন্ত্রক,কপালে ভাঁজ মধ্যবিত্তের

0
rail-minister increased-rail-fares

টাইমস বাংলা, ওয়েব ডেস্কঃ নির্বাচন শেষ হয়ে ফলাফল ও বেড়িয়ে গেছে তারপরই রেলের ভাড়া বাড়ালো রেলমন্ত্রক। এসি ইএমএউ ট্রেনে দেওয়া বিশেষ ছাড় তুলে নিল রেলমন্ত্রক। এর ফলে এক ধাক্কায় অনেকটাই বাড়ল রেলের ভাড়া। এভাবে রেলের টিকিটের দাম বৃদ্ধি হওয়াতে অসন্তোষ তৈরি হয়েছে সাধারণ মানুষের মধ্যে।
জাতীয় এক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর মোতাবেক, সূচনাস্বরূপ রেলমন্ত্রক এয়ারকন্ডিশন ইএমএউ ট্রেনে যে ছাড় দেওয়া হচ্ছিল তা তুলে নেওয়া হয়েছে। যার ফলে এবার থেকে বিরার থেকে চার্জগেট পর্যন্ত যে সব এসি লোকাল ট্রেন চালু হয়েছিল তাদের ভাড়া বাড়ছে। আজ শনিবার থেকেই বর্ধিত ভাড়া কার্যকর হচ্ছে। এমনটাই পশ্চিম রেলের তরফে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। এর ফলে যে প্রথম শ্রেণির বেসিক ভাড়া ছিল তা বাড়িয়ে ১.৩ গুণ করা হচ্ছে। যা আগে ছিল বেসিক ভাড়ার ১.২ গুণ। উদাহারণস্বরূপ যদিও ১২০ টাকা ভাড়া হত তা এখন বেড়ে হচ্ছে ১৩০ টাকা। এক ধাক্কায় হিসাব অনুযায়ী প্রায় ১০ টাকা বাড়বাড়ছে।
শুধু ট্রেনের ভাড়াই নয়, গ্যাসের দামও বাড়ল কেন্দ্রীয় সরকার। ভর্তুকিবিহীন গ্যাসের দাম বাড়ল ২৫ টাকা। এক ধাক্কায় এতটা দাম বাড়ায় মধ্যবিত্তের পকেটে আঁচ পড়বে বলেই মনে করা হচ্ছে।

[আরও খবর পড়ুন :    এবার বিজেপির সাথে রোজই লড়বো, বললেন রাহুল ]

বিশ্বের বাজারের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে রাষ্ট্রায়ত্ত তেলসংস্থাগুলি এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর ফলে কলকাতায় ভরতুকিবিহীন রান্নার গ্যাসের সিলিন্ডারের দাম বেড়ে হচ্ছে ৭৬৩ টাকা ৫০ পয়সা। শুক্রবার মধ্যরাত থেকে এই দাম কার্যকর হয়েছে। সেক্ষেত্রে যাঁরা ভরতুকি পান, তাঁদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ২৬২ টাকা ৯৮ পয়সা ভর্তুকি বাবদ জমা পড়বে।
উল্লেখ্য, ভোট মিটলেই জ্বালানি সহ সমস্ত জিনিসের দাম বৃদ্ধি হবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছিল বিরোধীরা। কার্যত সেই আশঙ্কা সত্যি করে ক্রমশ দাম বাড়ছে সব জিনিসের। একদিকে জ্বালানির দাম বাড়ছে অন্যদিকে এক ধাক্কায় বাড়িয়ে দেওয়া হল রান্নার গ্যাসের দামও। দাম বাড়ল ওয়েস্টার্ন রেলের একাধিক ট্রেনেও। সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রাথমিকভাবে এই ওয়েস্টার্ন রেলওয়েতে ট্রেনের টিকিটের দাম বৃদ্ধি হলেও ধীরে ধীরে দেশের একাধিকপ্রান্তে রেলের ভাড়া বৃদ্ধি হতে পারে। যদিও এই বিষয়ে এখনও পর্যন্ত রেলমন্ত্রকের তরফে কোনও কিছু জানানো হয়নি। তবে এভাবে দাম বৃদ্ধিতে মধ্যবিত্তের নাজেহাল অবস্থার আশঙ্কা।