অতীত গৌরব মনে করিয়ে দিচ্ছে বইমেলার মাঠে দাঁড়িয়ে থাকা ডাকবাক্স

0
The mailbox standing on the fairgrounds reminds us of past glory

টাইমস বাংলা নিউজডেস্ক : এবারের ৪৪তম আন্তর্জাতিক কলকাতা বইমেলা থেকে পৃথিবীর যেকোনো প্রান্তেই ডাকযোগে বই পাঠানো যাচ্ছে। ভারতীয় ডাক বিভাগের সহায়তায় অভিনব এই উদ্যোগ চালু হয়েছে সল্টলেক ৪৪তম আন্তর্জাতিক কলকাতা বইমেলায়। স্টল দিয়েছে ইন্ডিয়ান পোস্ট অফিস। বইমেলার স্টল নং-২০৭ এ বিক্রি হচ্ছে ডাক বিষয়ে নানা বই, চিঠি আদান-প্রদান করার দুষ্প্রাপ্য স্ট্যাম্প, মেমেন্টো, গেঞ্জি, টুপি। স্টলের সামনে ও বইমেলায় দিব্যি হেঁটে বেড়াচ্ছে একটা আস্ত লেটারবক্স ম্যান। ডাকবিভাগের পূর্বাঞ্চলীয় পোস্টমাস্টার জেনারেল শেখর দাস বলেন, “আসলে লেটারবক্স ম্যান আমাদের স্টলে দর্শকদের আকর্ষণ বাড়াচ্ছে। যারা বই কিনে কুরিয়ার মারফত গিফট করতে চায় তারা লেটার বক্স ম্যানের মাধ্যমে নির্ধারিত শুল্কের বিনিময়ে বই পাঠিয়ে দিতে পারেন। তিনি আরও বলেন, পত্র প্রেরক বা প্রাপকের ছবি আমরা এখানেই স্ট্যাম্প বানিয়ে দিচ্ছি। সেই স্ট্যাম্প পার্সেল বক্সে সাটিয়ে ইচ্ছুক মানুষ প্রিয়জনকে পার্সেল পাঠাতে পারে। কলকাতার পোস্ট অফিসে যা হয় তার সম্পূর্ণ কাজটাই হচ্ছে বইমেলাতেই। আমরা যতই ইমেল, হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করিনা না কেন ডাক বিভাগের গুরুত্ব আজও অপরিসীম তা বোঝাতেই এবারে বইমেলায় স্টল দেওয়া।বইমেলায় ভারতীয় ডাকঘরের পরিকল্পনার এখনো অনেক কিছু বাকি রয়েছে, আশা করছি সময় হলেই দেখতে পারবেন।”ডাক বিভাগকে বইমেলার মাধ্যমে তুলে ধরার উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাচ্ছে তরুন প্রজন্ম।