ফণীর উদ্ধার কাজে হাত না লাগিয়েও আরএসএস কর্মীদের ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল

0
the-photo-of-the-rss-workers-despite-not-working-in-the-rescue-of-the-spear-is-viral-in-social-media

বিশেষ নিবন্ধ,মহম্মদ ঘোরী শাহ্,টাইমস্ বাংলা: এ কোন বিড়াম্বনায় পড়ল দেশ? ফণীতে বিধস্ত ওড়িশায় সাদা শার্ট ও খাঁকি প্যান্ট পরা আরএসএস কর্মী উদ্ধার কাজে নেমে পড়েছে।যেমনি এই ধরণের কয়েকটি ছবি ফেসবুক ও ট্যুইটারে পোষ্ট হল তৎক্ষণাৎই ভাইরাল হয়ে পড়ল।অথচ দ্য ফার্স্টপোষ্ট নামক অনলাইনের অন্ততদন্তে উঠে এল ভিন্ন প্রক্ষাপট।

সাইক্লোনের কারণে নির্বাচন কমিশন ওড়িশা থেকে নির্বাচন বিধি তুলে নিয়েছে এই মুহুর্তে। হয়তো,কারণ এটাই যে কোন রাজনৈতিকদল বা সংগঠন তাদের রাজনৈতিক ফয়দা তুলতে ত্রাণ কাজে হাত লাগাতে পারে।অন্যকিছু না হলেও কমপক্ষে পীড়িতদের কিছুটা হলেও সুবিধা হবে।আর সেই সুযোগটাই গ্রহন করল বিজেপির পিতৃ সংগঠন আরএসএস তাও আবার ময়দানে না পৌঁছেই।

অথচ অনলাইন পোর্টালটির তদন্তে দেখাযাচ্ছে, ছবি গুলি পুরানো,২০১৭ সালের নভেম্বর মাসের তামিলনাড়ুর সাইক্লোনের এবং ২০১৮ সালের অক্টোবরের তিতলি সাইক্লোনের।অথচ এই সময় পুরী বা কেওনঝাড়ে তাদের পাত্তায় নেই।

মানবিক কাজেও এত বড় ধোকা বোধহয় তারাই দিতে পারে।এমনটাও নয় যে তাদেরকে কেউ ওখানে ডেকেছিল। তাহলে পুত্র সংগঠনের জন্য এই ভাবেই মিথ্যাচার? তাহলে কি শিয়রে নির্বাচন বলেই কি এ কূকীর্তি?মন্দির-মসজিদের রাজনীতি এখন পাংশু রং নিয়েছে,নাম পরিবর্তন অনেকেই অবাঞ্ছিত ভাবছেন,ধর্ষন,লিঞ্চিং ও রাফেলে অনেকেই উদ্বিগ্ন।তাই পুত্রদের নির্বাচনী বৈতরণীর পালে হাওয়া দেওয়ার প্রচেষ্টা হয়তো এটা হতে পারে।

সে যাই হোক, এই কর্ম সংগঠনটির যে চরিত্র প্রকট করল তা সত্যিই বিশ্ময়ের! মানবিক দায়বদ্ধতা আর রাজনৈতিক প্রচারণা একাকার হয়ে পড়ল। এই প্রবনতা যাদের মস্তিষ্কে প্রোথিত হয়ে আছে তারা যে দেশ ও দশের জন্য কতটা মঙ্গল বহে আনতে পারে তা ভাবার সময় বুঝি এক্ষুনি।