সুব্রত বক্সী ও তিন হেরে যাওয়া প্রাক্তন সাংসদকে রাজ্যসভায় পাঠাচ্ছে তৃণমূল

0
Trinamool sends Subrata Boxi and three lost former MPs to Rajya Sabha

টাইমস বাংলা নিউজডেস্ক : নারী দিবসের দিনই রাজ্যসভার চার প্রার্থীর নাম সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ঘোষণা করলেন তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর সেই প্রার্থীদের বেছে নেওয়ার ক্ষেত্রেও দলের নারী ব্রিগেডের প্রতিই আস্থা দেখালেন মমতা। প্রার্থী হচ্ছেন অর্পিতা ঘোষ, মৌসম বেনজির নূর, সুব্রত বক্সী ও দীনেশ ত্রিবেদী।

আগামী ২৬ মার্চ পশ্চিমবঙ্গের পাঁচ আসন-সহ রাজ্যসভার মোট ৫৫টি আসনে নির্বাচন হতে চলেছে। নির্বাচন কমিশন সম্প্রতি রাজ্যসভা নির্বাচনের নির্ঘণ্ট ঘোষণা করেছে। মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষ দিন ১৩ মার্চ। আগামী ২ এপ্রিল রাজ্য থেকে তৃণমূলের চার সাংসদ যোগেন চৌধুরী, কেডি সিং, আহমেদ হাসান ইমরান ও মনীশ গুপ্তর মেয়াদ শেষ হচ্ছে। একই সঙ্গে বহিষ্কৃত সিপিএম সাংসদ (অধুনা তৃণমূল শিবিরভুক্ত) ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়ের মেয়াদও শেষ হচ্ছে।

বিধানসভায় এখন বিভিন্ন দলের যে শক্তি-বিন্যাস, তাতে এই পাঁচ আসনের মধ্যে চারটিতে তৃণমূলের জয় নিশ্চিত। বাম-কংগ্রেসের জোট হলে একটি আসনে জোটের প্রার্থী জিততে পারেন। এই আসনে কংগ্রেস নাকি সিপিএম, কারা প্রার্থী দেবে–তা এখনও স্পষ্ট নয়। কংগ্রেসের ক্ষেত্রে রাজ্যসভার প্রার্থী এআইসিসি চূড়ান্ত করে। সিপিএম সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি এই বিষয়ে কংগ্রেস হাইকমান্ডের সঙ্গে আগামী সপ্তাহে কথা বলতে পারেন বলে বামফ্রন্ট সূত্রের খবর। প্রদেশ কংগ্রেস এখনও কোনও প্রার্থীর নাম পাঠায়নি। পুরনির্বাচনে বাম-কংগ্রেস জোট করছে। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যসভা নির্বাচনের প্রার্থী বাছাই নিয়ে কোনও মতপার্থক্য হোক, কোনও পক্ষই তা চাইছে না।
এই পরিস্থিতিতে নেত্রীর গুডবুকে যারা আছেন, তাঁদেরই প্রার্থী করলেন মমতা। লোকসভা ভোটে অর্পিতা, মৌসম ও দীনেশ ত্রিবেদী হেরে গিয়েছিলেন। তাই তাঁদের এবার রাজ্যসভায় পাঠাচ্ছেন তৃণমূল নেত্রী। আর সুব্রত বক্সী লোকসভায় দাঁড়াননি। কিন্তু তাঁর মতো দলঅন্ত প্রাণ ব্যক্তিকে রাজ্যসভায় পাঠানোর সিদ্ধান্তের প্রশংসা করছেন রাজনৈতিক মহলের অনেকেই।

আগামী ২৬ মার্চ পশ্চিমবঙ্গের ৫ আসন সহ রাজ্যসভার মোট ৫৫ টি আসনে হতে চলেছে নির্বাচন। যার নির্ঘন্ট প্রকাশ করা হয়েছে ইতিমধ্যেই। বাংলার ওই ৫ আসনের মধ্যে ৪ আসন একেবারেই নিশ্চিত তৃণমূলের জন্য। বাকি একটি আসনে সুযোগ পাবে বাম কংগ্রেস জোট প্রার্থী। এখানে তৃণমূলের এই ৪ প্রার্থী কারা কারা হবে তা নিয়ে জল্পনার অন্ত ছিল না। একাধিক নামের ঘোরাফেরায় উঠে এসেছিল ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোরের নামও। রবিবার সব জল্পনা পরিষ্কার করে নামের যে তালিকা এদিন তৃণমূল সুপ্রিমো প্রকাশ করলেন সেখানে দেখা গেল, লোকসভা নির্বাচনে হেরে যাওয়া ৩ প্রার্থীকেই তুলে ধরা হয়েছে রাজ্যসভা নির্বাচনের জন্য।

প্রসঙ্গত, লোকসভা নির্বাচনের কিছু আগে কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন মালদা উত্তরের সাংসদ মৌসুম নুর। ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে তাঁকে ওই আসন থেকে প্রার্থীও করেছিল তৃণমূল তবে বিজেপি প্রার্থীর কাছে হেরে যান তিনি। পাশাপাশি বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রে অর্পিতা ঘোষ হেরেছিলেন বিজেপি প্রার্থী ডঃ সুকান্ত রায়ের কাছে। ব্যারাকপুর দীনেশ ত্রিবেদী হেরে যায় তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়া অর্জুন সিংয়ের কাছে। তবে তাঁদের হারের দুঃখ ভোলাতে এবার ওই নেতা নেত্রীদের রাজ্যসভায় পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিলেন মমতা।