ইউক্রেনীয় বিমান ধংশে ট্রাম্পকেই দায়ী করলেন মার্কিণ বিশেষজ্ঞ স্টিফেন লেল্ডম্যান

0
Ukrainian expert Stephen Leldman blames Trump for Ukrainian aviation

নিউজডেস্ক, টাইমস্ বাংলাঃ ইরাকে জে.সোলাইমানির হত্যার পরেই একটি ইউক্রেনীয় যাত্রীবাহী বিমান তেহরাণের উপকণ্ঠে উড়ানের অব্যবহিত পরেই সম্পুর্ণ ভাবে বিদ্ধস্ত হয়। ফলে সকল বিমান আরোহী মারা যায়,যার মধ্যে বেশিরভাগ কানাডিয়ান নাগরিক। এরপর থেকে শুরু হয় মার্কিন- ইরাণ বাকযুদ্ধ। মার্কিন গোয়েন্দাদের দাবী ইরাণ ইচ্ছাকৃত মিশাইল হামলা চালিয়ে বিমানটিকে ধংশ করেছে। কিন্তু ইরাণের সর্বোচ্চ ধর্মীয়নেতা আয়াতুল্লাহ খোমাইনি উচ্চ পর্য়ায়ের তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন।

অন্যদিকে ইরানের এই যাত্রীবাহী বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার ব্যাপারে মার্কিন সরকারকে সম্পূর্ণভাবে দায়ী করলেন আমেরিকার খ্যাতনামা লেখক এবং রাজনৈতিক বিশ্লেষক স্টিফেন লেন্ডম্যান।

তিনি বলেছেন, “ভুল করা যাবে না। আঞ্চলিক দেশগুলোর বিরুদ্ধে যে ট্রাম্প প্রশাসন ভয়াবহ যুদ্ধ শুরু করেছে তাদেরকেই এই ইউক্রেনের বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার জন্য সম্পূর্ণ দায় বহন করতে হবে। মার্কিন সরকারই ইরানের সামরিক বাহিনীকে আমেরিকার সম্ভাব্য আগ্রাসন মোকাবেলার জন্য সতর্ক অবস্থায় থাকতে বাধ্য করেছে।”

তিনি আরো বলেন, “প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ইরানের ৫২টি স্থানে সন্ত্রাসী কায়দায় বোমা হামলার হুমকি দিয়েছেন যা উত্তেজনাকে আরো বাড়িয়ে দেয়। মধ্যপ্রাচ্যে আমেরিকার ঘাঁটিগুলোই হচ্ছে সীমাহীন যুদ্ধ-আগ্রাসনের মূল কারণ।”

লেন্ডম্যান বলেন, “যতদিন পর্যন্ত পেন্টাগনের বাহিনী মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো দখল করে থাকবে ততদিন পর্যন্ত সেখানে শান্তি ও স্থিতিশীলতা আসবে না। এর বাইরে ট্রাম্প প্রশাসন ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের বিরুদ্ধে নতুন করে অবৈধ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। আমেরিকার শত্রুতামূলক ভূমিকার কারণে মধ্যপ্রাচ্যে উত্তেজনা চরম আকার ধারণ করেছে এবং তাদের কারণেই বড় রকমের যুদ্ধের হুমকি দেখা দিয়েছে। এ ধরনের যুদ্ধ হলে অগণিত মানুষের প্রাণ যাবে।