জিন্না যে কাজ করতে পারেন নি, মোদী সেকাজ করছেন,দাবী অধীরের

0
RSS would have roared if Khan was at the end of Devendra Singh's name: Adhir Chowdhury

নিউজডেস্ক, টাইমস্ বাংলাঃ ভারত চলবে ভারতের বিধিবদ্ধ সংবিধান অনুসারে, কোন স্বৈরচারীর ইচ্ছায় নয়। জনগন ভোট দিয়ে কাকেও ক্ষমতায় আনে সংবিধান অনুযায়ী কাজ করার জন্য, সংবিধানকে ধংশ করার জন্য নয়। বর্তমানে বিজেপি সরকার যা করছে তা সরাসরি সংবিধান ও নাগরিক অধিকারের প্রতি অাঘাত স্বরূপ। এনাআরসি এবং সিএএ’র মাধ্যমে বহুলোকের নাগরিকত্ব কেড়ে নিয়ে নির্বাচন প্রথা তুলে দিয়ে একনায়কতন্ত্র হিন্দুরাষ্ট্রের পত্তন চায়ছে বিজেপি।

এই প্রসঙ্গ ধরেই কংগ্রেস সাংসদ অধীর রঞ্জন চৌধুরী বলেন, ‘আমরা জানি ওই আইনের মাধ্যমে কারও নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়া হচ্ছে না। কিন্তু এই আইনের মাধ্যমের আগামীদিনে এই ভারতবর্ষকে হিন্দু ভারতবর্ষ ও মুসলিম ভারতবর্ষে বিভাজিত করার চেষ্টা হচ্ছে। যে কাজ মুহাম্মাদ আলী জিন্নাহ করবার চেষ্টা করেছিলেন অথচ ভারতবর্ষের মুসলিমরা তাঁর বিরোধিতা করেছিল। এবং বিরোধিতা করেছিল বলেই আজকে ভারতবর্ষে পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম মুসলিম জনসংখ্যার বসবাস। জিন্নাহ যে কাজ পারেনি, অর্থাৎ দ্বিজাতি তত্ত্বের স্লোগাল তুলেও জিন্নাহ পুরোপুরি সফল হতে পারেননি। সেজন্য পাকিস্তানের থেকে মুসলিম বেশি। সেই কাজ নরেন্দ্র মোদি করতে চলেছেন। অর্থাৎ মুহাম্মাদ আলী জিন্নাহর যে স্বপ্ন তিনি বাস্তবায়িত করতে পারেননি, নরেন্দ্র মোদি সেই স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করার লক্ষ্যে নাগরিকত্ব আইনের নামে ভারতবর্ষের মানুষকে বিভাজিত করার চেষ্টা করছেন।’

এর আগে জাতীয় নাগরিকপঞ্জি এনআরসি ও সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন সিএএ ইস্যুতে বিজেপির সমালোচনা অধীর বাবু বলেছিলেন, ‘আমার বাপ-ঠাকুরদা বাংলাদেশের মানুষ, বিজেপির ক্ষমতা থাকলে আমাকে বাংলাদেশে পাঠাক। আসলে বিজেপি ধর্মের নামে দেশ চালাতে চাইছে। বাকি সম্প্রদায়ের সঙ্গে মুসলিমদের আলাদা করে বিভাজনের নীতি গ্রহণ করেছে বলেও কংগ্রেস নেতা অধীর চৌধুরী মন্তব্য করেন।