কেন অহেতুক ইরাণ ভীতির মধ্যদিয়েই শেষ হল আরব লীগের বৈঠক ?

0

মহম্মদ ঘোরী শাহ্, টাইমস বাংলা :
অনেকেই আরব লীগের ২৯ তম বৈঠকের দিকে তাকিয়ে ছিলেন।সমস্যায় জর্জরিত মধ্যপ্রাচ্যে শান্তির লক্ষ্যে হয়তো লীগ কোন মৌলিক সিদ্ধান্তে উপনিত হতে পারবে, এটা দেখার জন্যই অনেকেই উৎসুক ছিলেন।বর্তমানে মধ্যপ্রাচ্য একাধিক বিষ্ফোরণোন্মুখ আগ্নেয়গিরির মত সমস্যা বিরাজ করছে।যেমন শিরিয়ায় সম্প্রতিকতম মার্কিন আক্রমন, রাজধানী স্থানান্তর বিষয়ক ফিলিস্থীনি সমস্যা, ও ক্রমবর্ধিত ইস্রায়েলের নৃশংসতা, ইয়েমন সমস্যা প্রভৃতি।
কিন্তু আরব লীগের এই সম্মেলনের সবকটি বৈঠকে উক্ত সমস্যাগুলোর উপর তেমন ভাবে স্থান পায় নি।সম্মেলনে সর্বক্ষণ যে বিষয়টি গভীর ভাবে আলোচিত হয়েছে তাহল ইরাণ ভীতি।
কিন্তু কেন এই অবাঞ্ছিত আশঙ্কা আরব লীগের সকল সদস্যদের অন্তরে সঞ্চারিত করা হল? প্রকৃতপক্ষই কি মধ্যপ্রাচ্যের অন্যান্য রাষ্ট্রগুলির জন্য ইরাণ হুমকী স্বরূপ?
তবে এটা সত্য যেসব রাষ্ট্র হীন স্বার্থে মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন সাম্রাজ্যবাদের দালালি করছে তাদের কাছে ইরাণ প্রতিরোধ স্বরূপ।ইরাণ সব সময় চায় মধ্যপ্রাচ্যে সাম্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে যৌথ প্রতিরোধ গড়ে উঠুক।
আরবলীগের সাম্প্রতিকতম বৈঠক মধ্যপ্রাচ্যের জ্বলন্ত সমস্যাগুলো এড়িয়ে গেল কার অঙ্গুলি হেলনে? বিষয়টি স্পষ্ট, স্বাগতিক সৌদি আরব মার্কিন ইশারায় আরবলীগের স্বাভাবিক গতিকে প্রভাবিত করছে। অর্থাৎ পরিকল্পিত নির্দেশনায় অহেতুক ইরাণ অাশঙ্কাকে কাজে লাগিয়ে আরবলীগেরা প্রত্যেক সদস্যকে আজ্ঞাবহ ও মার্কিন সাম্রাজ্যবাদের সমর্থক করতে চায়ছে আরবলীগের নিয়ন্ত্রক সৌদিআরব।
সুতরাং এই আশঙ্কা যে অহেতুক, উদ্দেশ্যমুলক তা সকলেরই বোধগম্য।